ক্ষোভ প্রকাশ করে উপরওয়ালা কে দায়ী করলেন হিরো আলম

1
196
ক্ষোভ প্রকাশ করে উপরওয়ালা কে দায়ী করলেন হিরো আলম
ফাইল ছবি

ক্ষোভ প্রকাশ করে উপরওয়ালা কে দায়ী করলেন হিরো আলমক্ষোভ প্রকাশ করে উপরওয়ালা কে দায়ী করলেন হিরো আলম

গত কয়েকদিনের নেই আজকেও লাইভে আসলেন হিরো আলম। কিন্তু অন্য দিনের তুলনায় তাকে আজকে খুব বিমর্ষ দেখাচ্ছিলো। এই বিমর্ষ দেখার কারণ অনেক,

সম্প্রতি চিত্রনায়ক ও ব্যবসায়ী অনন্ত জলিল তাকে সিনেমায় নেওয়ার ব্যাপারে কথা বলেছিলেন এবং সাইনিং মানি হিসেবে 50 হাজার টাকা তিনি হিরো আলমকে দিয়েছিলেন। কিন্তু হঠাৎ করেই অনন্ত জলিল সিদ্ধান্ত পরিবর্তন করে ফেলেছেন। সরাসরি হিরো আলম কে ফোন করে জানিয়ে দিয়েছেন যে তাকে যে ছবিতে নেওয়া হয়েছিল এখান থেকে তিনি বাদ পড়েছেন। তবে বাদ দেওয়ার ব্যাপারে যথেষ্ট কোন কারণ উল্লেখ করতে পারেননি।

তবে এটা পরিস্কার ধারণা যে, শিল্পী সমিতির যখন জায়েদ খান ও মিশা সওদাগর কে বর্জন করলেন। তখন প্রশ্ন করা হয়েছিল শিল্পী সমিতি ১৮ দলের পক্ষ থেকে আপনাকে কেন অবহেলা করেছিল জায়েদ খান? জবাবে হিরো আলম বলেন, আমাকে প্রায় বাংলাদেশের প্রত্যেক জায়গার মানুষ চেনে। কিন্তু জায়েদ খান আমাকে চেনে না এটা খুবই হাস্যকর ও দুঃখজনক। ঠিক এরকম কথা বলার জন্যই অনন্ত জলিল হিরো আলম কে বাদ দিয়েছে ।অথচ হিরো আলম বলেন, আমি অনন্ত জলিল ভাইয়ের সাথে ছবি করবো এটার সাথে তো জায়েদ খানের কোন সম্পর্ক নেই। তাহলে আমি ধরেই নিয়েছি জায়েদ খানের বিরুদ্ধে বলাতে আমি অনন্ত জলিলের ছবি থেকে বাদ পড়েছি।

সম্প্রতি বিভিন্ন বেড়াজালে আলোচিত ও সমালোচিত হিরো আলম ।এসব কারণেই তিনি খুব দুঃখের সাথে বলেছেন, আল্লাহ কেন আমাকে পাঠিয়েছেন এই দুনিয়াতে। কেন আমাকে সুন্দর চেহারা দেয় নাই? কেন আমাকে কথা বলার যোগ্যতা দেয় নাই? কেন আমাকে অনন্ত জলিলের মত টাকা দেয় নাই? তাহলে তো আমি এত লাঞ্চিত হতাম না। কেনই বা তুমি আমাকে এত ডাকনাম ছড়ালে? তিনি খুব কষ্টে আবেগে এসব কথা বলেন।

হিরো আলমের সাথে এই কথাটা বেশ ভালভাবেই যায়। হতদরিদ্র অবস্থা থেকে আজকের এই হিরো আলম শুধু স্বপ্ন দেখেছিলেন বলেই আসতে পেরেছেন।

তাকে বিভিন্ন ভাবে আমরা ট্রল করি, উপহাস করি, তার গ্রাম্য টান নিয়ে হাসাহাসি করি কিন্তু ভাবিনা আমরা একজন মানুষকে কিসের ভিত্তিতে বিচার করছি।

আমর মনে হয় হিরো আলমরা ঠিকই আছে এই আমরাই বিকারগ্রস্থ। আমাকে একবার পচানি দেওয়ার জন্য বলা হয়েছিল “ আপনাকে হিরো আলমের মত লাগছে” ভাবা যায়, এই যুগেও আমাদের এহেন মানুষিকতা।

মানুষটা সাহস দেখিয়েছেন সংসদে যাওয়ার, মানুষটা সাহস জো লোক কি সুন্দরভাবেই সব সামলেছেন! তার কাছ থেকে শিখার অনেক কিছুই আছে।

আমি মনে করি একটা ডিগ্রি, আর বইয়ের কয়েকটা পাতা পড়াই শিক্ষিত আর অশিক্ষিত মানুষের মাপকাঠি হতে পারে না।

1 মন্তব্য

একটি মন্তব্য লিখুন

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে