অনন্ত জলিল এর কথা ঠিক নেই কখনো মাওলানা কখনো নায়ক ঢংঙে বাচেনা

0
67

অনন্ত জলিল এর কথা ঠিক নেই কখনো মাওলানা কখনো নায়ক ঢংঙে বাচেনা।

অনন্ত জলিল আপনার কথাই তো ঠিক নেই আপনি বলছেন আর মিডিয়া তে আসবেন না, ছবি করবেন না, বড় বড় দারি রাখলেন কোথায় গেলো আপনার কথার মর্যাদা বলেন ‌?

এখন শিরোনামের প্রথমে থাকার জন্য হিরো আলম কেই কে ব্যাবহার করলেন। এটা সুশীল সমাজে বেশ আলোচিত।

জায়েদ খান ও মিশা সওদাগর কে সবাই বয়কট করছে সেখানে ব্যক্তি মতামত হিরো অালমও দিতে পারে, তাই বলে জায়েদ খান-এর কথায় হিরো অালমকে না বলবেন। কিন্তু অাপনি জানেননা হিরো অালমকে অাপনার সিনেমাতে নেয়ার কারণে অনক নতুন ভক্ত অাপনি পেয়েছেন।। সেটা ধরে রাখতে পারলেননা আপনি। নিজেকে ফেমাস করার জন্য হিরো আলমকে ব্যাবহার করলেন।

হিরো আলম তো বলে নাই থাকে নিয়ে সিনেমা তৈরি করেন। নিজেই ডাকলেন নিজেই বাদ দিলেন। তাহলে তাকে ডাকার আগে তার সবকিছু জেনে ডাকলেন না কেন?
আর তাকে নিয়ে আপনি ছবি তৈরি করবেন এখানে হিরো আলম জায়েদ খান নিয়ে কী বলল সেটার সংশ্লিষ্ঠতা কতঠুকু?

চলচ্চিত্র জগতে অনেক চরিত্রবান ছোটলোক লোক আছে তাদের থেকে হিরো আলম অনেক ঊর্ধ্বে। মানুষকে কখনো চেহারায় যাচাই নির্ণয় করা যায় না।

আপনি নিজে ভাইরাল হবার জন্য মাস্টার প্লান করেছিলেন হিরো আলম কে নিয়ে,হিরো আলম কথা বলতে পারেনা ঠিক, হিরো আলমের চেহারা ভালো নয় তাও ঠিক কিন্তু সে খুব বড় মনের মানুষ এবং সহজ সরল আর এই সহজ সরল ছেলেটা কে নিয়ে ভালোই খেললেন।

অনন্ত জলিল আপনার এহেন আচরণ বিধি প্রশ্নবিদ্ধ হিরো এরকম আপনিও জানতেন। জাহেদের সাথে ওরে মিল করানোটা নিছক আপনার নিজের ফোকাসটাই ছিল এখন যা বুঝতে পারলাম। ওর চুল টুল কেটে এখন বাহানা করছেন। আর আপনি হিরোকে ব্যবহার করেছেন সুযোগ নিয়ে। কিন্তু আপনি নিজেও এখন জিরো হয়ে গেলেন। হেরে গেলেন বিবেকের কাছে জিতে গেল জাহিদ খানের ফাঁদ।

মানুষের জয় পরাজয় একটি কারণেই সীমাবদ্ধ নয়। হিরোআলমের লোক দেখে নায়ক হিসেবে আমিও এক সময় মেনে নিতে পারিনি। বাট কিছুদিন থেকে সমালোচিত এই ব্যাক্তিকে আমারও হিরো হিসেবে দেখতে ভালো লাগে।কারণ, তার কিছু কিছু কথা আমাদের পিছিয়ে পরা বিভেককে নারা দেয়।তাছাড়া হিরো আলমকে দশর্করা সত্যিকার হিরোর অর্থে দেখতে চায়। তাই তার অভিনিত চলচিত্র হিট হবার আশা রাখে।

আরো জানুন  ‌ক্ষোভ প্রকাশ করে উপরওয়ালা কে দায়ী করলেন হিরো আলম

হিরো_আলমের সার্বিক অবস্থা জেনেই তাকে আপনার ফিল্মের জন্য সাইনিং মানি দিয়েছিলেন! যা সর্বজনীন কর্তৃক প্রশংসিত হয়েছিল। নিশ্চয়ই তার একটা জনপ্রিয়তা ছিল বিদায় তাকে নিয়ে কাজ করার ইচ্ছে জ্ঞাপন করেছিলেন। আপনার তো এটা জানার কথা যে তার শিক্ষাগত যোগ্যতা কতটা ছিল! এটা কখনোই ভাবার ছিল না যে আপনার কোন মুভিতে তাকে কাজ করারো সুযোগ দিবেন এবং এভাবে নিজের দেয়া প্রতিশ্রুতি রক্ষায় ব্যর্থ হবেন ।
তবে, কি এটা ভাব’বো যে এতো কিছু ঘটিয়ে আপনি আলোচনায় আসতে চেয়েছিলেন?

হিরো আলমের খারাপ চরিত্রের কথা প্রমানসহ বললে ভাল হত।একজন মানুষকে এইভাবে ছোট করা ঠিক নয়।আপনি যদি তার কোন দোষ পেয়ে থাকেন তাহলে সরাসরি তাকে না করলেই হত, এভাবে মিডিয়ায় ঢোল পিটিয়ে বলার কি দরকার ছিল। সাইনিং মানি ও চারিত্রিক দিক নিয়ে বারবার ফেসবুকে পোস্ট দিয়ে আপনিও অসুস্থ মানসিকতার পরিচয় দিয়েছেন।কাউকে অসম্মান করার আগে বাভা উচিত,তাকে কতটুকু সম্মান দেবেন, আপনি ওই বল্লেন কান কথা শুনেন না ।

একটি মন্তব্য লিখুন

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে