বরেণ্য চলচ্চিত্র অভিনেতা সাদেক বাচ্চুর মৃত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ করেছেন হিরো আলম

0
1794
বরেণ্য চলচ্চিত্র অভিনেতা সাদেক বাচ্চুর মৃত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ করেছেন হিরো আলম
বরেণ্য চলচ্চিত্র অভিনেতা সাদেক বাচ্চুর মৃত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ করেছেন হিরো আলম

বরেণ্য চলচ্চিত্র অভিনেতা সাদেক বাচ্চুর মৃত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ করেছেন হিরো আলম

ঢাকাই সিনেমার জনপ্রিয় অভিনেতা সাদেক বাচ্চু আর নেই। করোনায় আক্রান্ত হয়ে মহাখালীর ইউনিভার্সেল মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় আজ সোমবার (১৪ সেপ্টেম্বর) দুপুর ১২টা ৫ মিনিটে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন তিনি। ইন্না-লিল্লাহ….. রাজিউন।

সাদেক বাচ্চুর মৃত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ করেছেন জনপ্রিয় অভিনেতা হিরো আলম হিরো আলম। হিরো আলম ডেইলি সিলেট 24 জানান,

তার প্রথম সিনেমা মার ছক্কা সাদেক বাচ্চুর সাথে। তিনি বলেন, আমার ভাগ্য খুব ভাল যে আমি এত বড় মাপের একজন অভিনয়শিল্পী সাথে অভিনয় করতে পেরেছি। এটা আমার জীবনের স্মরণীয় হয়ে থাকবে। তিনি বাংলা চলচ্চিত্রের অনেক মূল্যবান সম্পদ ছিলেন। বাংলা চলচ্চিত্র অবশ্যই একজন গুণী নক্ষত্রকে হারিয়েছে। তিনি বেঁচে থাকবেন সর্বস্তরের মানুষের হৃদয়ে। কীর্তিমানের মৃত্যু নেই।

মার ছক্কা ছবিতে

বরেণ্য চলচ্চিত্র অভিনেতা সাদেক বাচ্চুর মৃত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ করেছেন হিরো আলম
মার ছক্কা ছবিতে অভিনয় করেছিলেন সাদেক বাচ্চু হিরো আলমের সাথে

ইউনিভার্সেল মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ডা. আশীষ কুমার চক্রবর্তী ডেইলি সিলেট ২৪ নিউজকে এই তথ্য নিশ্চিত করেছেন। তিনি বলেন, সোমবার সকাল থেকেই তার হার্টবিট বন্ধ হয়েছে বেশ কয়েকবার। অবশেষে ১২টা ৫ মিনিটে সাদেক বাচ্চু মৃত্যুবরণ করেছেন বলে নিশ্চিত করা হলো।

সম্প্রতি জ্বরে আক্রান্ত হন সাদেক বাচ্চু। পরে তার শ্বাসকষ্ট দেখা দিলে গেল ৬ সেপ্টেম্বর তাকে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নেয়া হয়। গত শনিবার (১২ সেপ্টেম্বর) তার পরিবার সূত্রে জানা যায় এ অভিনেতা করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। জীবন জীবনের জন্য টিপিবি মানুষের জন্য “গোলাম রব্বানী”

এরপর শ্বাসকষ্ট বেড়ে গিয়ে সাদেক বাচ্চুর শারীরিক অবস্থার অবনতি ঘটায় শনিবার রাতে তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ থেকে ইউনিভার্সেল হাসপাতালে নেওয়া হয়। সেখানে হাসপাতালটির কোভিড ইউনিটের নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রে (আইসিইউ) ছিলেন এই অভিনেতা। তার শরীরের আর উন্নতি হয়নি। রোববার থেকেই তার হার্ট ও ফুসফুস ৮৫ শতাংশ অকেজো ছিলো। আজ সোমবার সকাল থেকেই কয়েকদফায় তার হার্টবিট বন্ধ হয়ে আবার চালু হয়েছে। ভেন্টিলেটরে থাকা অবস্থাতেই অবশেষে চলে গেলেন আজ না ফেরার দেশে।

তার মৃত্যুতে শোকের ছায়া নেমে এসেছে চলচ্চিত্রাঙ্গনে। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমেও বরেণ্য এই অভিনেতাকে হারিয়ে শোক প্রকাশ করছেন তার ভক্ত ও অনুরাগীরা।

প্রসঙ্গত, সাদেক বাচ্চুর আসল নাম মাহবুব আহমেদ সাদেক। চাঁদপুরে দেশের বাড়ি হলেও জন্ম তার ঢাকাতেই। সিনেমার কিংবদন্তি মানুষ এহতেশাম ‘চাঁদনী’ চলচ্চিত্রে তার নাম বদলে সাদেক বাচ্চু করে দেন। সেই থেকেই তিনি এ নামে পরিচিত।

টিএন্ডটি নাইট কলেজ থেকে গ্রাজুয়েশন কমপ্লিট করেন সাদেক বাচ্চু। কর্মজীবনে তিনি ডাক বিভাগে কর্মকর্তা হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন।

অভিনয় শুরু তার ১৯৬৩ সালে, খেলাঘরের মাধ্যমে রেডিও দিয়ে। একইসঙ্গে মঞ্চেও বিচরণ করেন। প্রথম থিয়েটার ‘গণনাট্য পরিষদ।’ ১৯৭২-৭৩ সালে মুক্তিযুদ্ধের পরবর্তী সময়ে যখন এদেশের সাংস্কৃতিক বলয় নতুনভাবে তৈরি হচ্ছিল, তখন যোগ দেন গ্রুপ থিয়েটারের সাথে। গভীরদীর্ঘ পথ পেরিয়ে ১৯৭৪ সালে প্রথম টেলিভিশন নাটকে অভিষিক্ত হন।

আরো পড়ুন

মোটরসাইকেল দুর্ঘটনায় নিহত “হিরো আলম” মিথ্যে গুজব ছড়িয়েছে কিছু কুচক্রী মহল

মোটরসাইকেল দুর্ঘটনায় নিহত হিরো আলম গুজব ছড়িয়েছে কুচক্রী মহল
হিরো আলম ফাইল ছবি

নেত্রকোনার দুর্গাপুর উপজেলায় দুটি মোটরবাইকে সংঘর্ষে একজন মারা গেছেন। এতে আলোচিত অভিনেতা ও মডেল ‘হিরো আলম’  আহত  হয়েছে বলে জাতীয় কয়েকটি দৈনিকের অনলাইন সংস্করণে সংবাদ প্রকাশিত হয়।  প্রকাশিত সংবাদ সম্পূর্ণ মিথ্যা ও ভুয়া বলে দাবি করেছেন অভিনেতা হিরো আলম।

আজ রোববার বিকেলে হিরো আলম ডেইলি সিলেট 24 ডটকম নিউজকে বলেন, ‘আমি এ মুহূর্তে রাজধানীর কাকরাইলে আমার অফিসে অবস্থান করছি। কয়েকটি পত্রিকা আমার দুর্ঘটনার মিথ্যা সংবাদ পরিবেশন করেছে। আমি তাদের বলেছি, এ নিউজ উঠিয়ে নেওয়ার জন্য। আমি সম্পূর্ণ সুস্থ আছি।’ এসব গুজব আমাকে নিয়ে প্রায়ই ছড়িয়ে থাকে এটা খুবই অস্বাভাবিক। আমার বিষয়ে নানা রকম গুজব ছড়ানো হয়। কিছুদিন আগেও একটা মেয়েকে জড়িয়ে নানা রকম গুজব ছড়ানো হয়েছিল। পরে সেই মেয়ে লাইভে এসে সব কিছু স্বীকার করে। আসলে গুজব ছড়ানোটা কিছু মানুষের কাজ। জানি না এসব করে লোকে কী মজা পায়। হয়তো আমাকে মেরে ফেলতে চায়। কিছু মানুষে আমাকে কেন মেরে ফেলতে চায় আসলে বুঝি না।

হিরো আলম আরো বলেন, “আমার নতুন ছবি ‘সাহসী হিরো আলম’ সামনে মুক্তি পাবে। আমি এ ছবির কাজ নিয়ে ব্যস্ত আছি। মিথ্যা নিউজ করে আমাকে বিভ্রান্তিতে ফেলেছে।”

নেত্রকোনার দুর্গাপুর উপজেলার শ্যামগঞ্জ-বিরিশিরি সড়কের শান্তিপুর এলাকায় আজ দুপুরে দুটি মোটরসাইকেলের মুখোমুখি সংঘর্ষে সুজন মিয়া (৩৯) নামের এক ব্যক্তি নিহত হয়েছেন। এ সময় চারজন আহত হন। পুলিশ ও স্থানীয়রা জানান, সুজন তাঁর মোটরসাইকেলে করে আরো দুজনসহ একটি বিয়ের অনুষ্ঠানে যাচ্ছিলেন। এ সময় দুর্গাপুরের শান্তিপুর কালামার্কেট এলাকায় পৌঁছালে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে সুজনের মোটরসাইকেলটি ‘হিরো আলম’ নামের এক ব্যক্তির মোটরসাইকেলকে পেছন থেকে ধাক্কা দেয়। এতে দুটি মোটরসাইকেলই রাস্তার পাশে উল্টে পড়ে যায়। ঘটনাস্থলেই সুজন মারা যান। আর এখানে স্থানীয় মটরসাইকেল চালক হিরো আলম নামে নিহত হওয়ার খবর ছড়িয়ে দেয়।

সোশ্যাল মিডিয়ায় মিউজিক ভিডিও করে জপ্রিয় হয়ে ওঠেন আশরাফুল আলম ওরফে হিরো আলম। নিজ জেলা বগুড়া থেকে সংসদ নির্বাচনে অংশ নিয়েও তুমুল আলোচিত তিনি।

আমাদের ওয়েবসাইট ভিজিট করতে এখানে ক্লিক করুন

একটি মন্তব্য লিখুন

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে